এমার্জেন্সি নম্বর : 90 5171 5171 / 8334031345

রোগী ও তার আত্মীয়দের জন্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও গাইড লাইন

 1. আই . ডি . প্রুফ :

পেশেন্টের আইডি প্রুফ (ভোটার কার্ড/ প্যান কার্ড/ আধার কার্ড/ ড্রাইভিং লাইসেন্স / পাসপোর্ট) হসপিটালে অ্যাডমিশনের সময় অবশ্যই জমা দিতে হবে ।

  2. সাক্ষাতের সময় :
  1. জেনারেল ওয়ার্ড – সকাল ১০.৩০ মিনিট থেকে ১১.৩০ মিনিট এবং বিকেল ৫ টা থেকে ৭টা পর্যন্ত (এই সময়ের মধ্যে একসাথে দু’জন ভিজিটিং কার্ড দেখিয়ে রোগীর সাথে দেখা করতে পারবেন )।
  2. আই.সি. ইউ/ আই.টি ইউ তে একজন ব্যক্তি (বাড়ির লোক হলে অগ্রাধীকার পাবেন) সন্ধ্যা ৫.৩০ থেকে ৬.৩০ এর মধ্যে ৫ মিনিটের জন্য দেখা করতে পারবেন ।
  3 অগ্রিম জমা টাকা :

এমার্জেন্সি/ দূর্ঘটনাগ্রস্থ রোগীদের ডিপোজিট ছাড়াই চিকিৎসার জন্য ভর্তি নেওয়া হয় । এই সমস্ত ক্ষেত্রে ২৪ ঘন্টার মধ্যে নিম্নলিখিতভাবে টাকা জমা দিতে হবে ।

  1. জেনারেল ওয়ার্ড - ১৫,০০০ টাকা
  2. ডবল রুম - ২৫০০০ টাকা
  3. সিঙ্গল রুম - ৩০,০০০ টাকা
  4. স্যুইট - ৪০,০০০ টাকা
  5. আই.সি.ইউ/ আই.টি. ইউ - ৪০,০০০ টাকা
  6. অ্যাডমিশনের সময় জমা দেওয়া অ্যামাউন্ট টোটাল বিলের সঙ্গে যোগ হবে । অপারেশন/ প্রসিডিওর বা সার্জারির আনুমানিক খরচ (যা প্যাকেজ সেল রুম নম্বর ২ থেকে দেওয়া হবে ) এই খরচের হিসেব অন্তত্যপক্ষে সার্জারীর ১ দিন আগে জানিয়ে দেওয়া হবে ।
  7. আই.সি.ইউ/ আই.টি. ইউ – পেশেন্টদের জন্য তাদের আত্মীয়দের এমার্জেন্সির সময় ২৪ ঘন্টা হসপিটালে থাকতে অনুরোধ জানানো হচ্ছে ।
  8. চিকিৎসা চালু রাখার জন্য প্রত্যেক রোগীর আত্মীয়কে একদিন অন্তর টাকা জমা রাখার অনুরোধ জানানো হচ্ছে । অপারেশন বা প্যাকেজ প্রসিডিওরের ক্ষেত্রে পুরো টাকা নির্ধারিত দিনের মধ্যে জমা করতে হবে ।
  4. বেড ভাড়া :

বেড ভাড়া, নার্স, মেডিক্যাল অফিসার , সার্ভিস, খাওয়া ইত্যাদি ধরে ( আই.সি.ইউ / আই .টি.ইউতে অক্সিজেন ও পালস্ অক্সিমিটার নিয়ে )

 5. খাদ্য :

রোগীকে হসপিটাল থেকে খাবার দেওয়া হবে । বাইরের খাবার নিষিদ্ধ ।

  6. বিলিং :

রুম নং ১৭বি এবং ১৭সি তে ইন্টারমিডিয়াট বিল অ্যামাউন্ট (প্রভিশনাল পাওয়া যাবে) । বিকেল ৫টা থেকে ৭টার মধ্যে মোট বকেয়া অ্যামাউন্ট ঠিক কতটা হতে পারে তা জানিয়ে দেওয়া হবে । ফাইনাল বিলিং এর সময় ব্রেক আপ বিস্তারিতভাবে জানিয়ে দেওয়া হবে । যদি বিল সম্পর্কে কোন জিজ্ঞাসা থাকে, তাহলে এ.এম.এস এর অফিসে এবং রুম নম্বর ১৭বি,১৭সি এবং ১৭ডি-তে যোগাযোগ করুন ।

  7. দিনের হিসেব :

দুপুর ১২টা পর্যন্ত ১ দিন ধরা হবে । যদি রোগী দুপুর ১২টার মধ্যে ডিসচার্জ না হয় তাহলে আরও একদিনের বেডচার্জ যোগ করা হবে ।

  8. ডিসচার্জ :
  1. ডিসচার্জের সময় ১১টা থেকে ১২টার মধ্যে যদি রোগী দুপুর ১২টার মধ্যে ডিসচার্জ না নেয় তাহলে আরও একদিনের বেডচার্জ যোগ হবে ।
  2. TPA রোগীর ডিসচার্জের সময় দুপুর ৩টে । TPA হেল্প ডেস্ক থেকে যাবতীয় ক্লিয়ারেন্স পেয়ে তবেই পেশেন্ট ডিসচার্জ হবে ।
  9. বকেয়া টাকার ব্যবস্থা :

রোগীর স্থানান্তর বা রিস্ক বন্ডের ভিত্তিতে (DORB/LAMA) ডিসচার্জের সময় , রোগীর আত্মীয়কে অবশ্যই বকেয়া টাকা এবং হসপিটালের চুরান্ত বিল মিটিয়ে দিতে হবে ।

10. রিপোর্ট সংগ্রহ :

ডিসচার্জ / রিলিজ এবং রিপোর্ট ডিউ স্লিপ – এর সময় রোগী সমস্ত রিপোর্ট নাও পেতে পারেন । যখন সব রিপোর্ট চলে আসবে তখন দয়া করে ফ্লোর PRO / ফ্রন্ট অফিসে যোগাযোগ করুন ।

11. ওষুধ / ড্রাগ/ ডিসপোজেবল্ :

রোগীকে যাবতীয় প্রেসক্রাইব করা বা তার প্রয়োজনীয় ওষুধ ,ড্রাগ ডিসপোজেবল্ হসপিটাল ফামার্সি থেকে সংগ্রহ করতে হবে । প্রতিদিন রোগীর আত্মীয়কে বকেয়া বিল মিটিয়ে দিতে হবে ।

12. হসপিটালে থাকার অনুমতি :

আই.সি. ইউতে জরুরী ক্ষেত্রে কেবলমাত্র সবার্ধিক দু’জন পুরুষ হসপিটালে রাতে থাকার অনুমতি পাবেন । বিস্তারে জানার জন্য ফ্রন্ট অফিস ম্যানেজার/ নাইট অ্যাডমিনিসট্রেটার- এর কাছে জানুন এবং সিক্যিউরিটি অফিস থেকে Night Arm Band সংগ্রহ করুন । অন্যথা রাতে থাকা যাবে না ।

13. এয়ার কন্ডিশন :

AC এর কোন যান্ত্রিক গোলযোগের ক্ষেত্রে কর্ত্তৃপক্ষ দায়ী নয় । সেক্ষেত্রে কোন অভিযোগ গ্রায্য হবে না ।

14. কনসালটেন্ট এর সাক্ষাত :

যদি রোগীর আত্মীয়রা রোগী যে ডাক্তারের অধীনস্ত আছে তার সাথে দেখা করতে চান তাহলে “মে আই হেল্প্ ইউ” কাউন্টারে যোগাযোগ করুন । রোগীর আত্মীয়দের ডাক্তারের সুবিধা মত সময়ে উপস্থিত থাকতে হবে ।

15. বেড টারিফ :

বেডচার্জ বা রেট অ্যাডমিশন কাউন্টার থেকে সংগ্রহ করতে হবে ।

16. আনুমানিক খরচ :

হসপিটাল পেশেন্টের খরচ তার আত্মীয়কে জানিয়ে দেবে । তবে এই খরচ আনুমানিক এবং তা পরিবর্তন হতে পারে , দিনের একটি নির্দিষ্ট সময়ে আনুমানিক খরচ ফাস্ট ফ্লোর রুম নম্বর ১৭ (বি/সি) অথবা গ্রাউন্ড ফ্লোর রুম নম্বর ১০ থেকে জানতে পারবেন ।

17. প্রাইভেট সিস্টার :

এই পরিষেবা এখানে উপলব্ধ নয় । তবে ১২ ঘন্টার জন্য জেনারেল বেড / এক্সিকিউটিভ বেড ক্যাটাগরীতে -৩৫০ টাকা, সেমি প্রাইভেট ৫০০ টাকা, আই.সি ইউ অথবা আই.টি.ইউ তে ৬০০, প্রাইভেট বা স্যুটে ৭০০ টাকায় হসপিটাল থেকে রোগীর জন্য একজন হেলথ্ অ্যাসিসটেন্ট সংগ্রহ করতে হবে । এই সুবিধা পাওয়ার জন্য লিখিত আবেদনপত্র সহ ফ্লোর PRO এর সঙ্গে যোগাযোগ করুন ।

18. টিপস্ :

হসপিটালের কোন কর্মীকে কোন কারনে টিপস্ দেওয়া যাবে না ।

19. রোগীকে স্নানান্তর :
  1. পোস্ট সার্জিকাল কেসের ক্ষেত্রে লোয়ার বেড থেকে হায়ার বেডে রোগীকে স্থানান্তর করা হবে , হায়ার বেড ক্যাটগরী’র নির্ধারিত রেটেই রোগীর আত্মীয়কে যাবতীয় চার্জ দিতে হবে ।
  2. জেনারেল ওয়ার্ড থেকে ক্রিটিক্যাল কেয়ার : রোগীর অবস্থার অবনতি হলে ডাক্তারের পরামর্শে রোগীকে জেনারেল ওয়ার্ড থেকে ক্রিটিক্যাল ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হবে এবং তা রোগীর আত্মীয়দের জানিয়ে দেওয়া হবে ।
20. সিঙ্গল রুম :

রোগীর সাথে কেবল একজনই থাকতে পারবেন সিঙ্গল রুমে । আর এর জন্য রোগীর আত্মীয়দের (২৪ ঘন্টার জন্য ) ১০১৫ টাকা জমা দিতে হবে । এই রেটের মধ্যে ব্রেকফাস্ট , লাঞ্চ ও ডিনার যুক্ত রয়েছে ।

21. স্যুট রুম :

স্যুটে রোগীর সাথে একজন আত্মীয় থাকতে পারবেন । (হলুদ কার্ড ইস্যু করা হবে, তাতে ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ ও ডিনার যুক্ত রয়েছে ), যদি একজনের বেশি আত্মীয় রোগীর সাথে থাকতে চান , তাহলে অতিরিক্ত আরও একটি হলুদ কার্ড ইস্যু করতে হবে । এর জন্য অতিরিক্ত ১২৭৫ টাকা মাথা পিছু দিতে হবে । ( এর মধ্যেই ব্রেকফাস্ট , লাঞ্চ , ডিনার যুক্ত থাকবে )

22. রোগীর সম্বন্ধে / হাসপাতালের পরিসেবা সংক্রান্ত :

রোগীর সম্পর্কে বা হসপিটালের যেকোনও ধরণের পরিষেবা সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা থাকলে দয়া করে ফ্রন্ট অফিস ম্যানেজার/ ম্যানেজার- অপারেশন/ পেশেন্ট সার্ভিস ম্যানেজার / ফ্লোর PRO / ম্যানেজার অ্যাডমিনিশট্রেশনের সঙ্গে যোগাযোগ করুন ।

23. সার্ভিস চার্জ :

টোটাল বিলের ওপর ১২.৫ শতাংশ সার্ভিস চার্জ যোগ হবে । (ডাক্তার ভিজিট ও ফার্মাসি বাদে )।

24. ব্যক্তিগত জিনিসপত্র :

রোগীর আত্মীয়র যেকোনও ধরনের ব্যক্তিগত জিনিসপত্রের জন্য হসপিটাল কর্ত্তৃপক্ষ দায়ী নয় ।

25. খবরের কাগজ :

খবরের কাগজ প্রতিটি রোগীর জন্য কমপ্লিমেন্টরি ।

কিছু খুঁজছেন ? এখানে দেখুন